গন্ডার | The Rhinoceros

…আর সব মানুষেরা যেন ধীরে ধীরে পরিণত হচ্ছে স্থুলচর্ম গন্ডারে…হারাচ্ছে সব অনুভূতি…হারাচ্ছে মানবিকতা…গন্ডার হওয়াটাই যেন স্বস্তিদায়ক…তাতেই প্রশান্তি…তাতেই সুখ…কে চায় দুনিয়াদারী নিয়ে ভেবে ভেবে বিভোর হতে, স্বপ্ন দেখতে, অবচেতন মনকে নাটাই-ছেঁড়া ঘুড্ডি বানিয়ে ছেড়ে দিতে?…চোখ-কান খোলা রাখলেই যে বিপদ!…

তার চাইতে গন্ডার হয়ে যাওয়াটাই যেন ভালো…

গন্ডার যখন প্রথম দেখি তখন থেকেই অন্যতম প্রিয় , আর এখন নিজেই এর অংশ। অভিনয় করি মিসেস বফ চরিত্রে। আয়োনেস্কো’র গন্ডার আদ্যোপান্তই অ্যাবসার্ড নাটক, মূলত এর ডায়ালগের বুনটে। এই নাটকের অভিনয় দেখে যত না মজা পাই, তারচেয়ে করেক গুণ বেশি মজা পাই মনে মনে ডায়ালগগুলো পড়তে। একটা প্রিয় অংশ এরকম –

জ্যা – (ব্যারেঞ্জার-কে, হোটেলের এক কোণার টেবিলে বসে ) একটা গন্ডার, এ আশ্চর্য ঘটনা যেন কিছুতেই ভুলতে পারছি না!

বৃদ্ধ ভদ্রলোক – ( বুদ্ধিজীবী-কে, হোটেলের আরেক কোণার টেবিলে বসে) বেশ সুন্দরীই, তাই না?

একজনের কথার সাথে আরেকজনের কথার প্রসঙ্গেই কোনো মিল নেই, অথচ পরপর শুনলেই মনে হয় যেন কতটাই প্রাসঙ্গিক! এই নাটকের এটাই মজা! এত সাট্‌ সাট্‌ কথাগুলো হয় যে মনোযোগ না দিলে এই মজাটা দর্শক বুঝতে পারে না!

যেহেতু এই নাটকে অভিনয় করি, ফলে আর সব সময়ের মতো ছবি তোলা হয় না। প্রথম শো এর দিন স্টেজ রিহার্সালের কিছু ছবি তুলেছিলাম, তাই সম্বল। আপাতত সেগুলাই এখানে জমিয়ে রাখার ধান্দা (!) যাতে ভবিষ্যতে চট করে খুঁজে পাওয়া যায়…

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s