দিনযাপন | ২২০৪২০১৫

গত পরশু কি তার আগের দিন হঠাৎ করেই মনে হলো যে ফোনটা মনে হয় আর বেশিদিন আমার সাথে থাকবে না। সাথে সাথে চিন্তা করলাম ফোনের যে মেসেজগুলা আছে, বিশেষ করে ‘তার’ সাথে আমার শেষ কয়েকদিনের মেসেজগুলা কোথাও লিখে রাখা দরকার। ফোন যদি হারিয়ে যায় তাহলে তো মেসেজগুলাও যাবে। আরেকবার ভাবলাম ব্যাকআপ রাখার যে সফটওয়্যার আছে, ওইটা ইউজ করবো কি না … এগুলা আর করা হলো না, কারণ প্রচণ্ড অসুস্থ হয়ে চলছি গত তিন/চারদিন যাবত। যেটুকু সময় বাইরে থাকি তার ধকল সামলাতে বাসায় এসে চিৎপটাং …

তো, যাই হোক, আসল কথা হচ্ছে যে ফোনটা সত্যি সত্যিই আজকে হারিয়ে ফেলেছি … পকেট থেকে পড়ে গেছে মনে হয় … কিন্তু কোথায় পড়েছে টেরও পাইনি … গ্রুপ থেকে বের হবার সময় পেছনের পকেটে রেখেছিলাম মনে আছে। কিন্তু তারপর সেটা কাঁটাবন মোড়ে যে চায়ের দোকানের পাশে বসেছিলাম ওখানে পড়লো, না বাসার সামনে রিকশা থেকে নামার সময় পড়লো তা বলতে পারি না … ফোনটা নাই আবিষ্কার করেছি বাসায় ফেরার বেশ কিছুক্ষণ পর। ফলে বাসার সামনেও যদি রাস্তায় পড়ে থাকে, ততক্ষণে কেউ না কেউ সেটা দেখে নিয়ে যাবারও যথেষ্ট সময় পেয়েছে … আমি অনেকবার ফোন দিলাম, রিং হচ্ছিলো … এক পর্যায়ে ফোন বন্ধ পেলাম। অর্থাৎ তখনো যদি কারো হাতে পড়ে থাকে সে ফোনটা বন্ধ করে দিয়েছে … কারণ ফোনে যথেষ্ট চার্জ ছিলো …

কি আর করা! আমার তো সবকিছুই হারিয়ে যায় … ফোনটাও গেলো … আগেরবারের ফোনটা গেছে ৫ মাসও ঠিকমতো হয়নি এখনো … এটাও গেলো … অবশ্য, এই ফোনটা হারানোর পেছনে আরেকটা কারণ থাকতে পারে … এই ফোনটা তো ‘তাকে’ সাথে নিয়ে গিয়ে কিনেছিলাম … আর ‘তার’ সাথে যেসব স্মৃতির সম্পর্ক আছে, সেগুলো সবই তো একে একে হারিয়ে যাচ্ছে, নষ্ট হয়ে যাচ্ছে … ফোনটাও বাদ থাকবে কেন! …

এই ফোনটা কিনতে যাবার সময় তাকে সাথে যেতে বলেছিলাম। তার দায়সারা আচরণ দেখে উলটো মেজাজই খারাপ হয়ে গিয়েছিলো ! তার আই ফোন কেনার আগে আগে তো প্রতিদিন তিন-চার বার করে খোঁজ নিতো টাকাটা জোগাড় হলো কি না … এক-দুই দিন দেরি হবে বললেই এমন রি-অ্যাকশন দিতো যেন আই ফোন-টা নির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে কিনতে না পারলে তার বিরাট ক্ষতি হয়ে যাবে … তারপর যখন আরেকটা ফোন হারালো … তখনো তো প্রায় হাজার পনেরো টাকা দিয়ে নতুন ফোন কিনলো … সেই ফোনের অর্ধেক টাকাটাও তো আমার কাছ থেকেই নিলো! … আর আমি তো খালি ফোন কেনার সময় সাথে থাকতে বলেছিলাম! …

ভাগ্যিস ল্যাপটপটা কেনার সময় তার উপস্থিতি ছিলো না … নইলে এতদিনে ল্যাপটপটাও হয়তো হাতছাড়া হয়ে যেতো … অবশ্য সে অনেকবার এই ল্যাপটপ ব্যবহার করেছে … তবে, আশা করি সেটার জন্য ল্যাপটপের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না …

ফোন কেনার টাকাও নাই এখন … অমিত মাঝে মাঝেই ফোন হারায়, এই দেড় -দুই মাস আগেও হারিয়েছে … সে কারণে মা সবসময় একটা পনের শ’ কি দুই হাজার টাকার ফোন কিনে রেখে দেয় বাসায়, যাতে অমিতের ফোন হারালে সেটা ব্যবহার করতে পারে। সেইরকমই একটা ফোন আপাতত আমার ব্যবহারের জন্য পেলাম। কালকে সিম তুলতে হবে। এখন এটাই চলুক। একটা মোটামুটি মানের স্মার্ট ফোন কিনতে হলেও তো হাজার পাঁচেক টাকা লাগবে … সেই টাকাই বা পাবো কই! …

এবার ফোনটা হারিয়ে বেশ ভাবলেশহীন অবস্থায় আছি … ‘ওহ আবার একটা কিছু হারালো’ টাইপ অনুভূতি …

সবই তো হারিয়ে যাচ্ছে … একে একে আর যা আছে সবই হয়তো হারিয়ে যাবে …

তারপর, একদিন আমি নিজেই হারিয়ে যাবো …

সবকিছু হারাবার আগেই আমি নিজেই হারিয়ে যেতাম, সেটাই তো বোধহয় ভালো ছিলো …

আজকে আর কিছু লিখতে ভালো লাগছে না … শরীর প্রচণ্ড খারাপ লাগছে … গ্রুপে মিটিং ছিলো, তাই বের হয়েছিলাম বাসা থেকে … মিটিং শুরু হলো দেড়ই করে, শেষ হলোও দেরিতে … আমার এত শরীর খারাপ লাগছিলো যে একবার মনে হলো মিটিং-এর মাঝখান থেকেই উঠে বাসায় চলে আসি … গ্রুপ থেকে যখন বের হই, তখন প্রচণ্ড মাথা ব্যথা শুরু হয়ে গেছে, আর মনে হচ্ছিলো সারা শরীর কাঁপছে … আজকে আর কাঁটাবনে দাঁড়ায় চা-ও খেলাম না, শাহবাগও গেলাম না … কোনওরকমে বাসায় ফিরলাম … কেমন একটা ঘোর ঘোর অবস্থা লাগছিলো … কিভাবে বাসায় পৌছাবো, সিঁড়ি বেয়ে চার তলা পর্যন্ত উঠবো, আর তারপর বিছানায় লম্বা হয়ে শোবো এই ভাবতে ভাবতেই বোধহয় বেখেয়াল হয়ে গিয়েছিলাম … আর ওই বেখেয়াল অবস্থার ফলেই ফোন বলে যে কিছু আছে সেটাও ভুলে গেছি! …

কি আর করা! সবই তো ‘এই তো জীবন’ বলে ক্রমাগত মেনেই চলছি … এটাও মেনে নিলাম …

জীবন থেকে কয়েকদিনের ছুটি পাওয়া গেলে ভালো হতো! …

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s