দিনযাপন । ১৭০৯২০১৬

আমার হাতে প্রচুর কাজ … তাও দিনযাপন লিখতে বসছি … কত তেল আমার!

স্কুলের লেসন প্ল্যান করতে হবে … রাফ লেসন প্ল্যান করা আছে … সেটা ফ্রেশ করে সাজিয়ে গুছিয়ে লেসন প্ল্যানের খাতায় তুলতে হবে … এখন অলরেডি রাত বাজে ১১টা … এখনো ধরিই নাই! … এতক্ষণ রেজিস্টার খাতা থেকে নাম্বার উঠালাম কম্পিউটারের ডাটাবেজে … এখন খাচ্ছি আর দিনযাপন লিখছি … তারপর বসবো লেসন প্ল্যান নিয়ে …

সকালে স্কুলে গিয়েছিলাম … সকাল ১০টা থেকে বিকাল পৌনে ৪টা পর্যন্ত বসে বসে সাড়ে ৩ সেট খাতা দেখার পর বাসায় ফিরেছি প্রচণ্ড ক্ষুধা আর মাথা ব্যথা নিয়ে … কোনোওরকমে একটু ভাত খেয়ে সাড়ে ৫টার দিকে ঘুম দিলাম … উঠলাম ৮টার দিকে … তারপর থেকে বসে বসে রেজিস্টারে নাম্বার তোলার কাজ করলাম … এখন লেসন প্ল্যান করতে হবে, আর দুইটা ওয়ার্কশিট টাইপ করতে হবে … কালকে প্রিন্ট করা লাগবে সেগুলো … তারপর কাটিং … তারপর পেস্টিং …

14368634_10153799898407371_6295606463879994952_n

আজকে দিনযাপন ‘লিখবোই লিখবো’ ভাবসাব নিয়ে আছি একটা বিশেষ কারণে … ২০০৮ সালের এই দিনে লেখা একটা ফেসবুক নোটের কিছু অংশ শেয়ার করতে চাই … কালকে ‘অন দিজ ডে’ তে ওই নোটটা পড়তে গিয়ে আমি যারপরনাই এক্সাইটেড হয়ে গেলাম … কেন এই এক্সাইটমেন্ট সেটা ব্যাখ্যা করার আগে নোটের ওই বিশেষ অংশটা শেয়ার করি –

… এইবার পরিকল্পনার কথায় আসি … কাল থেকে করি আর পরশু থেকে … কিংবা তরশু … কিংবা তার পরদিন … তার পরদিন … পরদিন … পরদিন … কোনো এক দিন …

প্রতিদিন যেই রিকশাতে উঠবো, সেই রিকশাওয়ালার ছবি তুলে রাখবো … এরা প্রতিদিন আমাদের কাছ থেকে কত টাকা-পয়সা নিয়ে চলে যায় … আবার কত কষ্ট করে আমাদের নিয়ে গন্তব্যে পৌঁছায় দেয় … এরা একই সাথে আমাদের বন্ধু এবং শত্রু স্থানীয় … এইরকম মানুষগুলোকে কি আমাদের স্মৃতিতে, ফ্রেমে বেঁধে রাখা উচিৎ না?? …অথচ এই আপনিই কিন্তু একদিন যেই রিকশাতে উঠবেন ৯৮% ক্ষেত্রে আপনি দুই দিন পর কিংবা প্রতিদিনই … কিংবা রিকশা ভাড়া দিয়ে চলে আসার পরপরই তার চেহারা ভুলে যান …

এইটা কি ঠিক বলেন?

তাই আমি ঠিক করেছি আমি চেষ্টা করবো মোটামুটি প্রতিদিন এই মানুষগুলোর ছবি তুলে আলাদা ফোল্ডার করে রাখতে … যাতে এরা বিস্মৃতির অতলে চলে না যায় … আবার কত রিকশাওয়ালার সাথে কত মজাদার কিংবা মেজাজ খারাপ করা ঘটনা ঘটে … তাদেরও একটা স্মৃতি থাকবে যে ওই রিকশাওয়ালা ওইরকম ছিলো, এই রিকশাওয়ালা ওইরকম ছিলো … আবার কোনোদিন দেখা যাবে অনেক দিন পর কোনো এক রিকশাওয়ালা কমন পড়ে যাবে … ‘আরি এ না সেই রিকশাওয়ালা????’ টাইপ কিছু একটা ঘটবে …

কি বলেন, আমার পরিকল্পনা কি খারাপ????

আমার তো মনে হয় না …” 

এই হচ্ছে নোটের বিশেষ অংশটুকু …

এখন, এই প্রায় ৮ বছর আগের লেখা নোট নিয়ে আমি কেন এক্সাইটেড সেইটা ব্যাখ্যা করি … এক্সাইটমেন্টের কারণ মূলত দুইটা …

প্রথমত, ওই সময় আমি ফটোগ্রাফির টেকনিক্যাল কিংবা থিওরেটিক্যাল কিছুই জানি না, বুঝি না … ছবি তোলার প্রবল আগ্রহ আর আশেপাশের মানুষজনের ‘বাহবা’ই সম্বল … ক্যামেরা বলতেও সনি কোম্পানির একটা সাইবার শট … ডিএসএলআর তখনও মনে হয় ধরেও দেখি নাই … তো, ওই সময়েই না জেনেই, না বুঝেই আমি একটা ‘টাইপোলজি’ স্টাইলে পোর্ট্রেট স্টোরির চিন্তা করে ফেলসি!

আর দ্বিতীয়ত, আজ পর্যন্তও আমার ওই পরিকল্পনা কিন্তু বাস্তবায়ন করা হয় নাই … কিন্তু ঘটনা হচ্ছে যে এই টাইপের কাজ অলরেডি এক/দুইজন করে ফেলসে … তাও এই রিসেন্ট ইয়ারে … ৩/৪ বছরের মধ্যে! … অবশ্য সেগুলো বেশিরভাগই রিকশাওয়ালার পেছন থেকে তোলা, নিজে যাত্রী হিসেবে রিকশাওয়ালা প্লাস জার্নির রাস্তা দেখানো টাইপের … যেমন, জসিম সালাম ভাইয়েরই এরকম একটা সিরিজ বেশ অনেকদিন ইন্সট্রাগ্রামে রেগুলার ছিলো … সরাসরি রিকশাওয়ালার চেহারার ছবি তোলার কাজ হয়নাই যদিও … কিন্তু, তবুও, প্রতিদিন রিকশাওয়ালার ছবি তোলা – এই থিমটাতে তো কাজ হইসে! …

কলেজে থাকতে কলেজ ম্যাগাজিনে একটা আর্টিকেল লিখসিলাম, পরিকল্পনা পরিহাস নামে … ওইটার মূল বক্তব্য ছিলো যে অনেককিছুই এমন হয় যে আমি ভাবলাম যে এমনটা করা যায় কি না, কিংবা এমনটা করবো, তারপর দেখি যে ওইটা হয় আগেই হয়ে গেছে, আর নয়তো আমি করার আগেই কেউ করে ফেলে … অথচ আমার ভাবনা কিন্তু একান্তই আমার মনের মধ্যেই … সেই ভাবনাটা কেমন করে আরেকজন চিনি না, জানি না মানুষের সাথে মিলে যায়! … তো, এই রিকশাওয়ালাদের ছবি তুলবো পরিকল্পনাটাও ভেবে-চিন্তে নোট লিখে রেখে দিসি, কিন্তু তারপর ভুলেও গেসি … তারপর এত বছর পরে এসে আবিষ্কার করলাম যে উইথাউট নোয়িং দ্যাট আই ওয়ান্স হ্যাড আ সিমিলার আইডিয়া, সামওয়ান এলস হ্যাজ অলরেডি ডান ফটোগ্রাফিক স্টোরিজ অন দিজ থিম …

মানে, আমি কি কখনো কখনো সময়ের আগেই অনেককিছু ভেবে ফেলি? … কে জানে! …

যাই হোক, আজকে আর কিছু লিখবো না … এমনিতে আজকে মাথা ব্যথা করছে, কাজেরও চাপ আছে … তাও এই এক্সাইটমেন্টটুকু ধরে রাখতে পারছিলাম না বলে দিনযাপন লিখলাম …

কালকে থেকে আবার ভোরবেলা ৫টায় উঠে সাড়ে ৬টায় বাসা থেকে বের হবার হ্যাসেল শুরু … আর আগামী দুইটা সপ্তাহ যে স্কুলের কি ব্যস্ততা যাবে অনলি গড নোজ … ষোলোকলা পূর্ণ হবে যদি এর মধ্যেই জাপানিজ স্টাডিজ-এরও ক্লাস শুরুর ডেট দিয়ে দেয় …   

 

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s