দিনযাপন । ২৭০৯২০১৬

ভয়াবহ স্মৃতির ডেটলাইনের মধ্যে ঢুকে গেছি আজ থেকে … ২০১৪ সালের এই সময়টা! … সেদিন হঠাৎ করেই মনে হলো, মাত্রই কি ১০ দিনের মধ্যেই এতকিছু হয়ে গিয়েছিলো? … এত কম সময়ের মধ্যে? … এতই ঘোরের মধ্যে ছিলাম আমি যে মনে হয়েছিলো অনেকটা দিন? … কি ভয়াবহ ব্যাপার! মাত্র ১০ দিনের মধ্যে আমি একদম আমার নিজের হাতেই সবকিছু শেষ করে ফেলেছিলাম? …

কেন ভুলে থাকতে পারছি না ব্যাপারগুলো? … আজকে আবার গতবছরের দিনযাপন পড়ছিলাম … তাতে করে যেটুকুও ভুলে থাকার ভান করছিলাম নিজের মধ্যে সেটাও হলো না … এখন প্রতিটা মুহুর্ত পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে মনের মধ্যে ভিড় করছে! …

আজকে কাশফিয়া আপু কথাপ্রসঙ্গে হঠাৎ বলছিলো যে নিজের ভেতরে আরেকটা প্রাণের বেড়ে ওঠার অনুভূতিটা কত অদ্ভুত … সাথে সাথে নিজের ভেতরেই কোথায় যেন একটা মোচড় দিয়ে উঠলো সবকিছু উথাল পাথাল হয়ে যাওয়া টাইপের অনুভূতি … আই উইশ আই কুড টাইপের অনুভূতি …

অনেকভাবে অনেককিছু ভুলে ভুলে থাকার আপ্রাণ চেষ্টা করছি গত কয়েকদিন ধরে … কিন্তু লাভ হচ্ছে না … এই তারিখে এটা হয়েছিলো, ওই তারিখে ওটা হয়েছিলো … কেমন স্বয়ংক্রিয়ভাবেই মনে পড়ে যাচ্ছে … আর সব মনে পড়া যখনই গিয়ে ৫ অক্টোবরে ঠেকছে,তখনই সব কেমন এলোমেলো হয়ে যাচ্ছে …

স্কুলের একগাদা কাজ … কিচ্ছুই করতে পারছি না মনোযোগ দিয়ে … ক্লাসগুলোও কেমন জানি নিচ্ছি … কেমন জানি একটা ভাবলেশহীন সময় কাটাচ্ছি … প্রচন্ড কাজের ব্যস্ততার মধ্যেও সবচেয়ে বেশি করে মনে পড়ছে ওই কয়েকটা দিনের যাবতীয় ঘটনা … মনে হচ্ছে নিজের ভেতরেই আবারো যেন সেই সময়টা অনুভব করতে পারছি …

কেন এমনটা হবে? অসহ্য!

14317381_890253721110465_3738662237509941198_n

আজকে ম্যান ফর অল সিজন্স-এর শো ছিলো … গতবছরও ম্যান ফর অল সিজন্স-এর একটা শো ছিলো, সেটা ছিলো ২৬ অক্টোবর … আর সেইদিনই ভোর বেলা আমার ম্যাকবুক প্রো-টা চুরি হয়েছিলো ঘর থেকে … আজকে প্রায় এক বছর পর ম্যান ফর অল সিজন্স-এর শো হলো, অথচ গেলাম না! নিজের ভেতরেই কেমন জানি ট্রমাটাইজড লাগছিলো যে এই ম্যান ফর অল সিজন্স নাটকটাই যেন কুফা! যেন এইটার কাজ করতে গিয়েই আমি গতবছর ওই শো-এর আগেরদিন খুব স্ট্রেসড হয়ে ফিরেছিলাম, আর তারপর ল্যাপটপটাকে সাথে করে নিয়ে ঘুমাতে যাবার কথা মনে হয়নাই … বরং প্রচন্ড ঘুমের চোখে কোনোমতে ল্যাপটপটা টেবিলের ড্রয়ারে রেখেই ঘুমাতে চলে গেছি … চারপাশে তাকিয়ে দেখেও নেইনি যে আনইউজুয়্যাল কিছু আছে কি না আশেপাশে … আর তারপর ভোরবেলা মা ডেকে যখন জিজ্ঞেস করলো ল্যাপটপ সাথে নিয়ে ঘুমিয়েছি কি না, টেবিলের ড্রয়ার টানা, জানালা খোলা , ল্যাপটপ নাই … সেই ধাক্কা লাগা অনুভূতিটা এখনো মনের ভেতরে রয়ে গেছে … ম্যান ফর আল সিজন্স-এর শো-তে যাবো বলে ভেবে রেখেছিলাম … কিন্তু এই অস্বস্তির অনুভূতি আমাকে মন থেকে তাগিদ দিলো না … না হলে হয়তো আজকে ভার্সিটির ক্লাস বাদ দিয়ে শিল্পকলাতেই যেতাম … ম্যান ফর অল সিজন্স তো নাটক হিসেবে বেশ প্রিয় … অথচ সেই প্রিয় নাটকের সাথে কত অস্বস্তির একটা স্মৃতি! …

ভাল্লাগে না আর এইসব …

রাতে দুই চোখের পাতা এক করার সাথে সাথে দুই বছর আগের এই সময়গুলার চিত্র ভেসে ওঠে … তাড়াতাড়ি করে চোখে খুলে ড্যাবড্যাব করে সিলিং-এর দিকে তাকিয়ে থাকি যাতে আর চোখ বন্ধ করে সেগুলো দেখতে না হয় … ঠিকমতো ঘুম হয় না, আবার সারাদিন স্কুল … তারপর ভার্সিটি … কেমন জানি জম্বি’র মতো মনে হতে থাকে নিজেকে …

পালিয়ে যাবো টাইপ ভাবসাব চলে আসতেসে মনের মধ্যে …

আর ভাল্লাগতেসে না আজকে লিখতে … মাথাটা জ্যাম হয়ে আছে … সকালে উঠতে পারি না ঠিকমতো … দেখা যায় যে ৫টায় উঠবার কথা, কিন্তু আল্টিমেটলি সাড়ে ৫টার অ্যালার্মে উঠি, তারপর সিএনজিওয়ালাকে ফোনে দেই, তারপর আবার ঘুমায় যাই! তারপর ৬টায় উঠে নাকে-মুখে নাস্তা করে রেডি হই! … আর সকালের এই তাড়াহুড়ায় সারাটা দিন অস্বস্তির মধ্যে কাটে … আজকে ঘুমিয়ে পড়বো এখনই … সাড়ে এগারোটার মতো বাজে …

মাথা ব্যথাও শুরু হয়েছে … ঘুমিয়ে যাওয়াটাই উচিৎ …

আচ্ছা, ঘুমিয়ে গিয়ে আগামী কয়েকদিন আর না উঠতাম! তাহলে ভালো হতো মনে হয়!  …

 

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s