দিনযাপন।২৯১২২০১৬

সন্ধ্যা থেকে কি যে গানবাজনা শুরু হইসে বাসার নিচে … পল্লবী বাড়িমালিক সমিতির নাকি বিজয় দিবসের আয়োজন! … তাও এতদিন পরে! … সরকারি নেতাও আসছে … ইলিয়াস মোল্লা এসে অনেকক্ষণ কথাবার্তা বলে গেলো … তারপর শুরু হইলো গান … গানের শব্দে জানালার কাঁচেও দেখি কাঁপাকাঁপি অবস্থা! গানের তীব্রতা সহ্য করতে না পেরে শেষে কানে হেডফোন লাগায় ইউটিউবে গান ছেড়ে শুনতে থাকলাম … কিন্তু সেটাও আর কতক্ষণ করা যায়? … দিনযাপন লিখতে বসলে তো আর হেডফোনে গান শুনতে শুনতে লেখা যাবে না … ফলে এখন বসে বসে দিনযাপন লিখছি, আর ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক হিসেবে এক মহিলা খুব বাউলিয়ানা টোনে ‘জাত গেলো জাত গেলো বলে এ কি আজব কারখানা’ গেয়ে যাচ্ছেন …

গতকালকে জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটি গিয়েছিলাম … গ্রুপের শো ছিলো … মহাবিদ্যা … তো আমিও ভাবলাম এই সুযোগে একটু ঘুরেফিরে আসি … বাসাতেই তো বসে থাকি এমনিতে … শো-এর উছিলায় জাহাঙ্গীরনগর গেলে একটু সময়ও তো কাটে … তো গেলাম … সময়ও কাটলো ভালো … অনেকদিন পর গ্রুপের শো-তে গিয়ে সবার সাথে হই হই রই রই … ফেরার সময় অবশ্য অনেক রাত হয়ে গেলো … আমরা রওয়ানা দিলাম নয়টার দিকে, কিংবা নয়টার একটু আগেই … হিসাবমতে ১০টার মধ্যেই আমি টেকনিক্যাল মোড়ে পৌঁছায় যাওয়ার কথা … তো ভাবলাম যে প্রিয়ম তো শ্যামলী যাবে, ও-ও না হয় আমার সাথে টেকনিক্যাল নেমে আমাকে একটা সিএনজি-তে উঠায় দেয়া পর্যন্ত থাকলেও হবে … কিন্তু সাভার থেকে টেকনিক্যাল মোড় পর্যন্ত এমনই জ্যাম যে টেকনিক্যালে যখন নামলাম, তখন বাজে সাড়ে ১১টা! প্রিয়মকে রিকোয়েস্ট করলাম যে বাসা পর্যন্ত আমার সাথে যাওয়ার জন্য … একে তো ব্যাগে ক্যামেরা, তার মধ্যে ওইদিনের ওই পুলিশি ঘটনার পর মনে মনে একটা ভয়ও কাজ করছিলো যে আবার না এরকম কিছু হয় … তখন তো পুরাই একা থাকবো! … তো প্রিয়ম মনে মনে খুব খুশি হয়ে আমাকে বাসা পর্যন্ত দিয়ে বাসায় ফিরলো তা না, কারণ বেচারারও দেরি হয়ে যাচ্ছিলো … অমিতের আবার আমাকে নামায় দিয়ে যেতে হলে বিশাল ঝামেলা পোহাতে হবে, তাই অমিতকেও জোর করলাম না … আমি ভাবছিলাম যে একটা সিএনজি পেলে একবারে ওই সিএনজি-ই হয়তো আমাকে নামায় প্রিয়মকে শ্যামলী দিয়ে আসতে পারবে … কিন্তু সিএনজি পেলাম না … পরে রিকশা দিয়েই বাসা পর্যন্ত আসলাম এক নাম্বার থেকে … প্রিয়মও নাকি পরে রিকশাতেই বাসায় ফিরে গেছে …

তবে মোটের ওপর একটা ভালো দিনই কাটলো কালকে … ঝামেলামুক্ত একটা দিন …

15420818_1805988419640847_8359545624791612264_n

আজকে সকালে একটা খুব মন খারাপ করা টাইপের স্বপ্ন দেখলাম … গতকালকে জাহাঙ্গীরনগরে বসে নোবেল ভাই, রেজার সাথে গোপীকে নিয়ে কথা হচ্ছিলো … ওর সাথে যেহেতু সরাসরি কথা হয়না, তাই অনেক আপডেটই জানি না … আবার হুট করে কাউকে জিজ্ঞেস করতেও কেমন জানি অস্বস্তি লাগে … কালকে কথায় কথায় নোবেল ভাই, রেজা ওদের কাছে গোপীর কথা শুনতে শুনতেই হয়তো ব্যাপারগুলো মাথায় গেঁথে ছিলো, ভাবছিলাম যে আসলেই কতদিন হইলো ওর সাথে একটা হাই-হ্যালোও করি না! সেটাও আমার খুব অস্বস্তি লাগে … যাই হোক, স্বপ্নে দেখলাম যে গোপীর সাথে দেখা করতে গেছি … খুব সম্ভবত ঘটনাটা এভাবে কোডিং হচ্ছিলো মাথায় যে আন্টি মারা গেছে, ও দেশে ফিরে এসেছে, আর আমি দেখা করার জন্য গিয়েছি ওর সাথে … গোপী আবার কোনো একটা ক্লাস নিচ্ছে বা কিছু একটা নিয়ে একটা গ্রুপের মধ্যে কথা বলছে, সেটাও আবার একই বিল্ডিং-এর মধ্যেই … বিল্ডিং-টাও বেশ অদ্ভুত … ইউ-শেপড একটা বহু পুরানো দিনের বিল্ডিং-এর মতো দেখতে বাইরে থেকে, আবার ভেতরে বেশ আধুনিক, পরিষ্কার করে সাজানো-গুছানো … তো আমি একটা রুমে গিয়ে বসলাম … তো এর মধ্যেই আবার দেখলাম যে আমি টি-শার্ট আর জিন্স পরে গিয়েছিলাম, কিন্তু হঠাৎ খেয়াল করলাম যে জিন্স খুলে কোথায় জানি রেখেছি আর পাচ্ছি না! … কি আজিব ঝামেলা! তাই ভাবছিলাম স্বপ্নের মধ্যে … এদিকে খালি টি-শার্ট পরে বসে আছি, রুম থেকে তো বের হতেও পারছি না … গোপীও ততক্ষণে ফ্রি হয়ে গেছে, কিন্তু আমি যে ওর সাথে দেখা করার জন্য গিয়েছি, সেটা তো আর ওকে জানাতে পারছিনা … এর মধ্যে দেখি বাইরে কি একটা সমাবেশ টাইপের হচ্ছে, সেখানে আবার মাদলেন আপা কথা বলছেন! … আমি অবাক হয়ে ভাবলাম যে এখানে মাদলেন আপা কেন? … তারপর আবার দেখি আবিদ স্যারও আছে … তো এইসব নিয়ে অবাক হতে হতে আমি ভাবলাম গোপীকে একটা ফোন দিয়েই দেই। আমি তো ভাবছিলাম সরাসরিই দেখা করবো … তাহলে হয়তো এতদিনের যোগাযোগ না থাকার ব্যাপারটা সহজ হবে … কিন্তু যেহেতু ওর সাথে দেখা হওয়ার সম্ভাবনাই ভন্ডুল হয়ে যাচ্ছে তাহলে তো ফোন করে বলতেই হবে যে আমি ওর সাথে দেখা করার জন্য অপেক্ষা করছি … এর মধ্যে আবার দেখি পাঠশালার ফরহাদ ভাই- ও ওখানে! … উনার সাথে দেখা হয়ে গেলো … উনি আবার আমাকে দেখেই একগাদা গিফট ধরায় দিলেন, অনেকদিন ধরে নাকি এগুলা নিয়ে ঘুরছেন আমার জন্য … তারমধ্যে দেখি একটা টার্কিশ সালোয়ারও আছে … প্রয়োজনের সময় একেবারে যুতসই গিফট … আবার এটাও ভাবলাম যে তাইলে উনার সাথে যখন দেখা হলো উনি খেয়াল করলো না কেন যে আমি হাফ-ন্যাংটা হয়ে ঘুরছি ? … যাই হোক, যেহেতু এবার বাইরে যাওয়ার উপায় হইলো, তো বের হইলাম … গোপীর বোনের সাথে দেখা হয়ে গেলো … তো ওর বোন জানালো গোপী নাকি ওর বন্ধুদের সাথে বের হয়েছে! … আমি ফোন করতে গিয়ে আবিষ্কার করলাম ওর নাম্বারই নাই আমার কাছে … ওর বোন বললো তার ফোনেও চার্জ নাই, নইলে নাম্বার বের করে দিতে পারতো … তারপর আমি আবার কি কি সব হাবিজাবি ভাবতে ভাবতে অপেক্ষা করতে থাকলাম … এর মধ্যে আবার ঘুমও ভেঙ্গে গেলো … গোপীর সাথে আর দেখা হলো না …

স্বপ্নটা দেখে কেমন জানি মন খারাপ হয়ে গেলো … একবার মনে হলো ওকে ফেসবুকে নক করেই ফেলি … কিন্তু পরে আবার সেই আবেগকে নিয়ন্ত্রণ করলাম …

আজকে সারাদিনে তেমন কিছুই করি নাই … ভেবেছিলাম আজকে মুনির ভাইয়ের জন্য যেই বইটার অনুবাদ করছি সেইটার অন্তত একটা চ্যাপ্টার শেষ করে ফেলবো … কিন্তু ঘুম থেকেই উঠেছি ১১টার দিকে … তার ওপর এরকম একটা স্বপ্ন দেখে আরো মন খারাপ হয়ে গেলো … পরে বসে বসে ইউটিউবে সিনেমা দেখলাম … সাইকোলজিক্যাল থ্রিলার  … নাম ‘হাশ’ … এক বোবা-কালা লেখিকা কীভাবে এক সিরিয়াল কিলারের হাত থেকে সারভাইভ করে সেই গল্প … খুব আহামরি মুভি না … তবু সময় কেটে গেলো …

আজকে বিকালে ঘুমাইনাই … তাই এখন একটু ঘুম ঘুম লাগছে … কিন্তু যেইভাবে এক মহিলা এখনো বাইরে ‘ঘুম ভাঙ্গায়া গেলো রে’ গেয়ে যাচ্ছে রাত পৌনে ১২টা সময় , তাতে ঘুমানোর আদৌ উপায় তো নাই … মাথাই ধরে গেছে আমার এই প্রচন্ড কান ঝালাপালা করা গান-বাজনায় …

আগামীকাল আবার গ্রুপের শো আছে … জিপি হাউজে … কিনু কাহারের থেটার … কালকে আবার ওখানে যাবো … একে তো অমিত এখন কিনু কাহারে পারফর্ম করে সেটা দেখবো, তারওপর কিনু কাহারের থেটারের জন্য যে মেকাপের রেফারেন্স ছবি তুলেছিলাম, সেগুলো নাকি হারিয়ে গেছে লাস্ট উইকে টাঙ্গাইলের শো-তে গিয়ে …কালকে আবার মেকাপের ছবিও তুলবো, কারণ আমার কাছেও ছবিগুলো নাই … সেই ২০১০-এ তুলেছিলাম …  ওই ছবিগুলো আদৌ কোনো হার্ড ড্রাইভে আছে কি না সেটা খুঁজে পাওয়ার চেয়ে নতুন করে তোলা অনেক সহজ …

আজকে আর লিখবো না … মাথাব্যথা করছে … ঘুমিয়ে থাকি … গানবাজনা কোলাহল মাত্র শেষ হইলো … এখন যে কি শান্তি লাগতেসে … সবকিছু নিরব, শুনশান …

যাই তাইলে আজকের মতো …

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s